1. forhad.one@gmail.com : Forhad Shikder : Forhad Shikder
  2. s.m.amanurrahman@gmail.com : pD97wRq9D9 :
স্বামীকে মাটি চাপা দেওয়ার ৩ মাস পর লাশ উদ্ধার, স্ত্রীসহ আটক ৪ - Top News
বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৭:১০ অপরাহ্ন

স্বামীকে মাটি চাপা দেওয়ার ৩ মাস পর লাশ উদ্ধার, স্ত্রীসহ আটক ৪

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেট মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০
  • ৩৬ সময়

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় নিখোঁজের প্রায় তিন মাস পর মাটির নিচ থেকে কমলেশ বাড়ৈ (৪৫) নামে এক কাঠমিস্ত্রির গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় ওই কাঠমিস্ত্রীর স্ত্রীসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৬ মে) সন্ধ্যায় উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের তালপুকুরিয়া গ্রামের বিলের মধ্যের একটি মাছের ঘের পাড় থেকে মাটিচাপা দেওয়া অবস্থায় পুলিশ ওই লাশ উদ্ধার করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোটালীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ লুৎফর রহমান।

নিহত কাঠমিস্ত্রী কমলেশ বাড়ৈ (৪৫) কোটালীপাড়া উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের তালপুকুরিয়া গ্রামের কেনারাম বাড়ৈর ছেলে।

এদিকে, নিহতের স্ত্রীর পরকীয়ার জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই কাঠমিস্ত্রীর পরিবারের সদস্যরা।

কমলেশ বাড়ৈর ভাই রবেণ বাড়ৈ জানান, কমলেশের স্ত্রী সুবর্ণা বাড়ৈ (৪০) এর সঙ্গে প্রতিবেশী মাছের ঘের ব্যবসায়ী মম্মথ বাড়ৈর দীঘদিন ধরে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝড়গা ও মনোমালিন্য চলতো।

এ ঘটনায় এলাকায় একাধিকবার সালিশ বৈঠক করা হয়। কিন্তু এতেও কোন কাজ হয়নি। সুবর্ণা পরকীয়া প্রেমিককে দিয়ে স্বামী কমলেশকে হত্যার পরিকল্পনা করে। ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে কমলেশ নিখোঁজ হয়।

কমলেশের নিখোঁজের ঘটনায় গত ৩ মার্চ কোটালীপাড়া থানায় একটি জিডি করা হয়। সুবর্ণা পরকীয়া প্রেমিক মম্মথর সহযোগিতায় কমলেশকে নির্মমভাবে হত্যা করে লাশ ঘেরপাড়ে মাটিচাপা দিয়ে রাখে।

ওসি শেখ লুৎফর রহমান জানান, মঙ্গলবার মম্মথর মাছের ঘেরপাড়ে গ্রামের বিপুল বাড়ৈ নামে এক লোক ঘাস কাটতে গিয়ে মাটি খোঁড়া দেখতে পান। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মাটি খুঁড়ে কমলেশের লাশ উদ্ধার করে।

তিনি আরো জানান, জিডির সূত্রধরে পুলিশ তদন্তে নামে। গ্রামের বিভিন্ন জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে, পরকীয়া প্রেমের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পরে।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে কমলেশের স্ত্রী সুবর্ণা বাড়ৈ, সুবর্ণার পরকীয়া প্রেমিক মম্মথ বাড়ৈর ভাই কৃষ্ণ বাড়ৈ, সহযোগী বিষ্ণু বাড়ৈ ও মম্মথর বন্ধু কালু বাড়ৈকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধারের পর কমলেশের স্ত্রী সুবর্ণা কমলেশের লাশ শনাক্ত করেন। উদ্ধার করা মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

প্রতিবেদন শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো খবর
© All rights reserved © 2020 Top News
Theme Developed BY ThemesBazar.Com
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com